আমার ট্রেডিং সিস্টেম বানানোর যাত্রা: শেষ পর্ব।

ব্রোকার / মানি প্রসেসর ঝামেলা, সিনিয়রদের হারিয়ে যাওয়া:
এর মধ্যে হঠাত করে লিবার্টি রিজার্ভ চলে গেল অনেকের ডলার সহ বড় বড় এমাউন্ট নিয়ে। এ ব্যাপারটা নিয়ে সব ব্রোকারদের মাঝে বেশ ভালো আলোচনা হয়েছিল। এরপর সুইস ফ্রাঙ্কের একটা হাজার তিনেক পিপসের মুভ অনেক ব্রোকারকে দেওলিয়া পর্যন্ত করে দিল। এত ঝড় ঝাপটার পর ট্রেড করতে বসতে ভয় কাজ করতো। বেশ কিছুদিন কমিউনিটি একটু ঠান্ডা ছিল। সিগনাল ব্যবসা যারা করতো, যারা ফান্ড ম্যানেজ করতো তাদের অনেকেই হারিয়ে গেল এই ঝড়ে। সে সময় যাদের আমরা গুরু মানতাম, যাদের অনুসরন করতাম তারা বিভিন্ন গ্রুপে ট্রেডারদের ভবিষ্যত আরো ভালো করার জন্য নানা উদ্যোগ নিতে গিয়ে নানাভাবে অপদস্থ হতো। এখনো বিভিন্ন গ্রুপে দেখবেন কেউ ভালো কোন উদ্যোগ নিলে আমরা খুজি তার লাভটা কোথায়। এটা ভাবি না উনি যেটা করতেছেন সেটা আমাদের কতটা উপকারে আসবে। কমিউনিটি কতটা উপকৃত হবে। এসকল কারনে সিনিয়র অনেক ট্রেডাররা গ্রুপ বন্ধ করে দিতে বাধ্য হলো।

কোর্স, দেশ বিদেশের নানা জনের সহায়তা:
এর পরের সময়গুলো কেটেছে বিভিন্ন ফোরামের পোষ্ট দেখে। সব মিলিয়ে আমি সেই আগের সিস্টেমটিকেই আরো ডেভেলপ করতে লাগলাম (এখনো চলছে)। আসলে সময়ের সাথে সাথে বিভিন্ন মার্কেট কন্ডিশনে নিজেকে তৈরী করাটাই আসল চ্যালেঞ্জ। আমার ট্রেডিং লাইফের বেশি সময় কেটেছে লোয়ার টাইমফ্রেমে। তারপর যখন থেকে হায়ার টাইমফ্রেমে চলে আসলাম তখন থেকেই আমার প্রফিটের শুরু। নতুন অনুরোধ করবো বা আমার উপদেশও বলতে পারেন যতটা দ্রুত পারেন তত তাড়াতাড়ি লোয়ার টাইমফ্রেম থেকে বের হয়ে আসার চেষ্টা করুন। টেনশন যেমন কমবে তেমনি প্রফিটও বেশি পাবেন।